Quantcast

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে, লন্ডন

লন্ডনে অবস্থিত এক গোথিক ক্যাথিড্র্যাল ওয়েস্টমিনস্টার আ্যবেয়

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে মূলত একটি গথিক গির্জা এবং এর পরিচয় একটি ক্যাথিড্রালের থেকেও অনেক বেশী যা ওয়েস্টমিনিস্টারের, ওয়েস্টমিনস্টার প্রাসাদের পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত।এটি ব্রিটিশ রাজতন্ত্রের রাজ্যাভিষেক এবং তার পাশাপাশি শেষকৃত্যের স্থান হিসাবে ব্যবহৃত হয়।

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে একটি অত্যাশ্চর্য স্থাপত্য বিস্ময় যা লন্ডন শহরের এক প্রধান গন্তব্য। এই অ্যাবে 1066 সাল থেকে ব্রিটেনের প্রতিটি রাজ্যাভিষেকের স্থান হয়ে এসেছে।বর্তমানে, এটি এখনও একটি গির্জা হিসেবে পরিবেশিত এবং লন্ডনের খ্রিস্টীয় মণ্ডলীর এক সর্বাধিক জনপ্রিয় স্থান।তবে, মনে রাখা উচিৎ যে এই অ্যাবে একটি প্যারিশ গির্জা বা একটি ক্যাথিড্রাল নয়, বরং এই দুইয়ের সম্মিলন।

প্রায় 3,000 মানুষকে এখানে সমাধিস্থ করা হয়েছে এবং এটি এক অন্যতম সম্মানিত সৌধ যেখানে “দ্য আননোন ওয়ারিয়র” কথাটি খোদাইকৃত করে লেখা রয়েছে। বিশেষতঃ লেডি চ্যাপেল অত্যন্ত চমৎকার এবং একটি অত্যাশ্চর্য পাখা যুক্ত ছাদ দ্বারা সুসজ্জিত।প্রখ্যাত ইতালীয় ভাস্কর পিয়েত্রো তরিগিয়ানোর চমৎকার কারিগরি সপ্তম হেনরির কবরে সুস্পষ্টভাবে পরিলক্ষিত হয়।

1540 সাল মধ্যযুগীয় মঠ গুলির পরমোন্নতির প্রত্যক্ষ দর্শী। অবশ্যই, 900 বছর বয়সী ইতিহাসের মধ্যে এই অ্যাবে বহু সংস্কার এবং সম্প্রসারণের সাক্ষী হয়ে রয়েছে কিন্তু মূল এলাকা অপরিবর্তিত রয়েছে।

উত্তর ও দক্ষিণে অবস্থিত এই গির্জার অংশ একটি পবিত্র ভান্ডার। গির্জার দক্ষিন অংশটি জনপ্রিয়ভাবে স্টেটসম্যান’স করিডর হিসেবে পরিচিত, যেখানে কিছু প্রখ্যাত ব্যক্তিত্বদের সমাধিস্থ করে হয়েছে, যেমন - উইলিয়াম পিট, চার্লস ফক্স, উইলিয়াম গ্ল্যাডস্টোন, বেঞ্জামিন ডিজ্ররেইলি।

অন্য দিকে, দক্ষিণ গির্জা তার সুন্দর গোলাপ জানালার জন্য সুপরিচিত, যেই জানালার কাঁচ গুলি 1902 সালের অন্তর্গত। সেন্ট ফেথ’স চ্যাপেলের দরজায় অলঙ্কৃত ত্রয়োদশ শতাব্দীর দুটি নিদারুণ চিত্রাংকন দেখে আপনি আশ্চর্য হয়ে উঠবেন।

এই অ্যাবের সবচেয়ে জনপ্রিয় বিভাগ হল পোয়েট’স কর্নার। এই পোয়েট’স কর্নারে সমাধিস্থ প্রথম কবি ছিলেন জিওফ্রে চসার।এমনকি মহান এডমুন্ড স্পেন্সারকেও এখানে সমাধিস্থ করা হয়েছে। উইলিয়াম শেক্সপীয়ারকে স্ট্রাটফোর্ড আপন আভনে প্রথমে সমাধিস্থ করা হয় কিন্তু উইলিয়াম কেন্ট তাকে মর্যাদা জানাতে 1740 সালে তার স্মৃতিস্তম্ভকে এই পোয়েট’স কর্নারে স্থানান্তরিত করেন।

চ্যাপ্টার হাউস এই অ্যাবের এক আবশ্যক পরিদর্শনীয় স্থান। এখান থেকেই এই মঠটি পরিচালিত হয় এবং এটি একটি চতুর্দশ শতকের সংসদীয় মিলনসভার স্থান হিসেবে ব্যবহৃত হত।ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবের দর্শন অসম্পূর্ণ রয়ে যায় এখানে অবস্থিত গ্রন্থাগারটি না দেখলে, যেখানে বিভিন্ন চিত্তাকর্ষক ঐতিহাসিক বই , পাণ্ডুলিপি এবং উপকরণ রয়েছে।

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে সম্পর্কিত তথ্য –

  • এই অ্যাবে 600টিরও অধিক স্মারক সৌধের আবাসস্থল - যা ব্রিটিশ যুক্তরাজ্যের সমগ্র স্মৃতিসৌধ গুলির মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য সংগ্রহ।
  • এই স্থান অষ্টম হেনরি দ্বারা 1540 সালে একটি ক্যাথিড্রালের মর্যাদা পায়।তবে এর ক্যাথিড্রাল মর্যাদা কেবলমাত্র নিম্নলিখিত দশকে স্থায়ী হয়।
  • এই অ্যাবে 1100 সাল থেকে 16 টি রাজকীয় বিবাহের সাক্ষী হয়ে রয়েছে।

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে কোথায়?

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে লন্ডনের কেন্দ্রে অবস্থিত।এটি বিগ বেন এবং সংসদ ভবনের নিকটে অবস্থিত। ওয়েস্টমিনস্টার এবং সেন্ট জেমস পার্ক এখানকার নিকটস্থ টিউব স্টেশন। গাড়ীতে ভ্রমণ করা এখানে খুব একটা সুবিধার নয় কারণ এখানে কোন পার্কিং সুবিধা নেই।

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে পরিদর্শনের সেরা সময় –

অ্যাবে সারাবছর ধরে সোমবার থেকে শনিবার পর্যন্ত পরিদর্শনের জন্য খোলা থাকে। এই অ্যাবে এছাড়াও বিশেষ ছুটির দিন গুলিতে খোলা থাকে, যেমন - রবিবার, বড়দিন, এবং ইস্টারের দিন কিন্তু শুধুমাত্র ধর্মীয় পরিসেবার জন্য। তবে এই অ্যাবে মাঝে মাঝে জাতীয় বা রাজকীয় উৎসব পালনের জন্য দর্শকদের জন্য বন্ধ থাকে।

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবের উপর বিস্তারিত তথ্য -

নিকটস্থ আকর্ষণসমূহ – বিগ বেন, হাউস অফ লর্ডস, ওয়েস্টমিনিস্টার ব্রিজ, হোয়াইটহল, লন্ডন ডাঞ্জিওন।

* সর্বশেষ সংযোজন : December 08, 2015

Published On: Tuesday, December 8th, 2015