Quantcast

কে.এল.টাওয়ার (কুয়ালালামপুর টাওয়ার), মালয়েশিয়া

কে.এল.টাওয়ার (কুয়ালালামপুর টাওয়ার), মালয়েশিয়া

বুকিত নানস অরণ্য সংরক্ষণ জুড়ে চমৎকারভাবে উদীয়মান, কে.এল. টাওয়ার বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা টেলিকম টাওয়ারের মধ্যে অন্যতম রূপে মর্যাদা লাভ করেছে। এই আকাশ-চুম্বী টাওয়ারটির উপর একটি বাল্বের অবলম্বিত অবস্হান, মালয়েশিয়ার ঘূ্র্ণায়মান খেলনার প্রতিকৃতির অনুরূপ। কে.এল.টাওয়ারে একটি ঘূ্র্ণায়মান রেস্তোঁরা ও একটি পর্যবেক্ষণ ডেক আছে। এগুলি শহরের দৃশ্য পরিদর্শনের তারিফ করার জন্য শ্রেষ্ঠ স্থান। টাওয়ারটি ইসলামী টাইলসের আকারে ইসলামী ঐতিহ্য, পরম্পরাগত পূর্ণাঙ্গ নিদর্শন ও ইসলামের সারাংশ প্রতীকির ছাপ বহন করে।

কে.এল. টাওয়ার তিনটি পর্যায়ে নির্মিত হয়েছিল :

  • প্রথম পর্যায়ের কাজ ছিল জালান পূনচাকের সম্প্রসারণ ও নির্মাণ স্থল থেকে মাটির খনন। এটি 1991 সালের 4-ই অক্টোবর শুরু হয় এবং সম্পন্ন হয় 1992 সালের 15-ই আগষ্ট।
  • দ্বিতীয় পর্যায়টি 1992 সালের 6-ই জুলাই এবং 1993 সালের 15-ই এপ্রিলের মধ্যে সুসম্পন্ন হয়। টাওয়ারটির ভিত্তি স্থাপন করা হয়েছিল এবং টাওয়ারটির বুনিয়াদ নির্মিত হয়েছিল।
  • টাওয়ার নির্মাণের, তৃতীয় পর্যায়ের কাজটি 1994 সালের মে মাসে শুরু হয়। এই পর্যায়ে প্রধান বারান্দা এবং গম্বুজটি সংযুক্ত হয়।
  • কে.এল.টাওয়ারের নির্মাণকার্যের পর, 1994 সালের 13-ই সেপ্টেম্বর অন্তিম ছোঁয়া প্রদান করা হয়।

কে.এল.টাওয়ারের সফর

এক মিনিটেরও কম সময়ে পর্যবেক্ষণ ডেকে পৌঁছানোর জন্য লিফট নিন। লিফটের সামনে আপনি একটি অডিও গাইড পাবেন যাতে আপনাকে ডেক থেকে পর্যবেক্ষিত ল্যান্ডমার্কগুলির ব্যাখ্যা দেয়। পার্শ্ববর্তী ভবনগুলির এক ঘনিষ্ঠ দৃশ্য পরিদর্শনের জন্য বেশ কিছু টেলিস্কোপ (দূরবীক্ষণ যন্ত্র) স্থাপণ করা হয়েছে।

আ্যটমোস্ফিয়ার 360 : কে.এল.টাওয়ার রিভলভিং রেস্তোঁরা

খাঁটি মালয়েশিয়ার ও আন্তর্জাতিক রান্না সহ শহরটির 360 ডিগ্রী পরিদর্শন উপভোগ করুন। উপর থেকে বিমোহিত দৃশ্যের পরিদর্শন পাবেন।

কে.এল.টাওয়ারে কার্যক্রম

  • 2014 সালের 26-শে সেপ্টেম্বর থেকে 29-শে সেপ্টেম্বর, মেনারা কে.এল আন্তর্জাতিক জাম্প ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
  • 2014 সালের 18-ই মে, কে.এল.টাওয়ার-এ আন্তর্জাতিক টাওয়ারথন চ্যালেঞ্জ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় প্রতিযোগীদের 2.058-টি সিঁড়ি আরোহণ করা প্রয়োজন।
  • মেনারা কুয়ালালামপুর ও ন্যাশনাল হেরিটেজ ডিপার্টমেন্ট দ্বারা সঞ্চালিত এক কার্যক্রম এক্সপ্লোরাসি ওয়ারিসন 2014, 2014 সালের 6-7 ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়।

কে.এল.টাওয়ার মানচিত্র

কে.এল.টাওয়ার সম্পর্কে তথ্যাবলী

  • মালয় ভাষায় টাওয়ারটি মেনারা কুয়ালালামপুর নামে অভিহিত।
  • কে.এল.টাওয়ারটি, 1996 সালের 23-শে জুলাই সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত হয়।
  • মালয়েশিয়ার চতুর্থ প্রধানমন্ত্রী টূন ডঃ মহাথীর মহম্মদ 1996 সালের 1-লা অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে এই টাওয়ারটির প্রতিষ্ঠা করেন।

কে.এল.টাওয়ার কোথায় অবস্থিত?

মালয়েশিয়ার এক অন্যতম ল্যান্ডমার্ক কে.এল.টাওয়ার, লেবুহরায়া কুয়ালালামপুর-পূ্ত্রজয়া রুটের মাধ্যমে কে.এল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে 59.9 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। টাওয়ারটিতে আপনি বাস, শাটেল বাস বা ট্যাক্সির মাধ্যমেও পৌঁছাতে পারেন।

ঠিকানা : মেনারা কুয়ালালামপুর, জালান পি.রামলীর পিছনে, নং – 2 জালান পানচাক, 50250, কুয়ালালামপুর, মালয়েশিয়া।

কে.এল.টাওয়ার পরিদর্শনের সেরা সময়

সন্ধ্যার শুরুর দিকে টাওয়ারটি পরিদর্শনে যান এবং শহরের সুদূরপ্রসারী দৃশ্য দেখার জন্য আ্যটমোস্ফিয়ার 360 রেস্তোরাঁয় একটি উপযুক্ত আসন দখল করুন। আপনি যদি দেরিতে পৌঁছান, একটি জানলার ধারে বসার আসন পাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকবে।

কে.এল.টাওয়ার দর্শনের সময়

পর্যবেক্ষণ ডেকটি প্রতিদিন সকাল 9:00-টা. থেকে রাত 10:00-টা. পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকে।

কে.এল.টাওয়ার টিকিট

পর্যবেক্ষণ ডেকটিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য মাথাপিছু 49:00 আর.এম (মালয়েশীয় ঋঙ্গিত) এবং শিশুদের জন্য মাথাপিছু 29:00 আর.এম মূল্য ধার্য রয়েছে। উন্মুক্ত ডেকটিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য মাথাপিছু 99:00 আর.এম মূল্য ধার্য রয়েছে। সম্মিলিত টিকিটও উপলব্ধ রয়েছে। আরোও বিস্তারিত তথ্যের জন্য আধিকারিক ওয়েবসাইট menarakl.com.my যাচাই করে নিন।

কে.এল.টাওয়ার সম্পর্কিত আরোও তথ্য

  • কে.এল.টাওয়ার-এর স্থানাঙ্ক কি কি?
    3.1528° N (ডিগ্রী উত্তর), 101.7033° E (ডিগ্রী পূর্ব)
  • কুয়ালালামপুর শহরের প্রসিদ্ধ আকর্ষণীয় স্থানগুলি কি কি?
    পেট্রোনাস টাওয়ার, বাটু কেভস, আ্যকোরিয়া কে.এল.সি.সি, থিয়ান হৌ মন্দির, কে.এল.সি.সি পার্ক, শ্রী মহমারিয়াম্মান মন্দির এবং আস সিয়াকিরিন মসজিদ।


* সর্বশেষ সংযোজন : September 11, 2015

Published On: Friday, September 11th, 2015