Quantcast

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো, তাঞ্জানিয়া

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো, তাঞ্জানিয়ার সর্বোচ্চ শৃঙ্গ

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো, ওরফে “আফ্রিকার ছাদ” বা “দ্য রুফটপ অফ আফ্রিকা” হল একটি যৌগিক সুপ্ত আগ্নেয়গিরি, যা পূর্ব আফ্রিকার দেশ তাঞ্জানিয়ার উত্তর প্রান্তে অবস্থিত। তুষারময় শিখর সহ, পর্বতটি সাভানা (নিষ্পাদপ প্রান্তর)-কে আয়ত্ত করে আছে। এটি “আফ্রিকার সাতটি প্রাকৃতিক বিস্ময়”-এর এক অন্যতম হিসাবে গণ্য হয়। কিলিমাঞ্জারো জাতীয় উদ্যান, আগ্নেয়গিরি স্তূপপর্বতটির সংরক্ষণ ও প্রতিরক্ষা করে। পর্বতটি বিভিন্ন বৈচিত্র্যময় উদ্ভিদকুল ও প্রাণিকুল সহ পরিপূর্ণ। অনেক বিপন্ন প্রজাতির উদ্ভিদ ও প্রাণী এই উদ্যানে রয়েছে।

কিলিমাঞ্জারো নামটি রহস্যে মোড়া। নাম সম্পর্কে সন্দেহাতীত ধারণা বিবিধ জল্পনার জন্ম দিয়েছে; যেমন গরিমাময় পর্বত (মাউন্টেন অফ গ্রেটনেস), আলোর পর্বত (মাউন্টেন অফ লাইট) বা ক্যারাভেনের পর্বত (মাউন্টেন অফ ক্যারাভেন)। তবে, চাগা গোষ্ঠীর স্থানীয় মানুষেরা শৃঙ্গটির কোনও নাম রাখেনি।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো জাতীয় উদ্যানে ক্রিয়াকলাপ

  • শিরা মালভূমির উপর হাইকিং।
  • ট্রাউট মাছ ধরা উপভোগ করুন।
  • উপলব্ধ ছয়টি ট্রেকিং রুট এবং অন্যান্য বেশ কিছু চ্যালেঞ্জিং পর্বতারোহণ রুটগুলি থেকে বেছে নিন।
  • কিলিমাঞ্জারো পর্বতের দক্ষিণ-পূর্বীয় ঢালে অবস্থিত অপরূপ ছালা আগ্নেয়গিরি হ্রদের পাশে বসুন।

বাসস্থানোযোগী ব্যবস্থা

বাসস্থানোপযোগী ব্যবস্থার জন্য উদ্যানটিতে পর্বতের ওপর কূটীর ও শিবির উপলব্ধ রয়েছে। যারা উদ্যানটি থেকে বাইরে থাকতে ইচ্ছুক, তাদের জন্য মারাঙ্গু গ্রাম এবং মোশি শহরে প্রচুর হোটেল ও শিবির আছে।

পর্বত আরোহণের উপদেশ

একদিকে যেমন কিছু মানুষ পর্বতের নয়নাভিরাম দৃশ্য পরিদর্শনেই সন্তুষ্টি লাভ করেন, তেমনই অনেক রোমাঞ্চ প্রেমী রয়েছেন যারা মহিমাম্বিত পর্বত আরোহনের ইচ্ছা রাখেন। তাদের এই নিম্নলিখিত উপদেশগুলি অনুসরণ করা উচিৎ:

  • “কচ্ছপ ও খরগোশের” গল্পটি স্মরণে রাখবেন। ধীর ও অবিচলেরা দৌড়ে জয়ী হয়। আপনার ধীরে ধীরে মাউন্ট কিলিমাঞ্জারোতে আরোহণ করা উচিৎ, তাহলে আপনার শিখরে পৌঁছানোর সম্ভাবনা বৃ্দ্ধি পাবে।
  • উচ্চতাজনিত অসুস্থতা আপনাকে অস্থির করে তুলতে পারে, তাই এই পর্বতটিতে আরোহণের জন্য কমপক্ষে পাঁচটি রাত সময় নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।
  • উহুরু কেন্দ্র বা গিলম্যান’স কেন্দ্রে পৌঁছে যাওয়া আরোহণকারীদের উদ্যানের পক্ষ থেকে প্রশংসাপত্র সহ পুরষ্কৃত করা হয়।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো মানচিত্র

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো সম্পর্কে তথ্যাবলী

  • কিলিমাঞ্জারো অঞ্চলটি 1987 সালে ইউনেস্কো দ্বারা বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসাবে তালিকাভুক্ত হয়।
  • কিলিমাঞ্জারো ন্যাশনাল পার্ক 75.575 হেক্টর এলাকা জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে।
  • 5,895 মিটার উচ্চতায় উপনীত পর্বতের সর্বোচ্চ কেন্দ্রবিন্দুটি, কিলিমাঞ্জারো-কে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মহাদেশ আফ্রিকার সর্বোচ্চ পর্বত রূপে গড়ে তুলেছে।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো কোথায় অবস্থিত?

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো, মোশি শহরের নিকটে উত্তরীয় তাঞ্জানিয়ায় অবস্থিত। এটি আরুশা থেকে প্রায় 128 কিলোমিটার (80 মাইল) দূরে অবস্থান করে আছে। কিলিমাঞ্জারো বিমানবন্দর থেকে পর্বতটির প্রবেশদ্বারে পৌঁছাতে প্রায় এক ঘন্টা সময় লাগে।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো পরিভ্রমণের সেরা সময়

যেহেতু মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো বিষুবরেখার কাছাকাছি অবস্থিত, তাই এখানে তাপমাত্রা ওঠা-নামা খুব কমই হয়। ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি মাস এবং জুন থেকে সেপ্টেম্বর, শুষ্ক মরশুমই হল এই পর্বত পরিভ্রমণে যাওয়ার উপযুক্ত সময়। এছাড়াও, দিনের প্রথম ভাগে আপনার ভ্রমণের পরিকল্পনা করুন, কারণ পরের দিকে স্বল্প-মাত্রায় বৃষ্টির সম্মুখীন হওয়ার অভিজ্ঞতা হতে পারে।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারোর টিকিট

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারোতে আরোহণ করতে হলে, আপনার মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো জাতীয় উদ্যানে প্রবেশ করাটা প্রয়োজন। 16 বছর এবং তার উর্ধ্বে ভ্রমণার্থীদের এই উদ্যানে প্রবেশের জন্য প্রবেশমূল্য হল 70 মার্কিন ইউরো (US $70)। 5 বছর থেকে 16 বছরের মধ্যবর্তী শিশুদের জন্য প্রবেশমূল্য হল 20 মার্কিন ইউরো (US $20)। 5 বছরের নীচে শিশুদের জন্য বিনামূল্যে প্রবেশের অনুমতি রয়েছে। অন্যান্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা; যেমন শিবির, উপদেষ্টা, বাসস্থানোপযোগী ব্যবস্থা ইত্যাদির জন্য পৃথক ধার্যমূল্য রয়েছে।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারোর উপর আরোও তথ্য

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারোর স্থানাঙ্ক কি কি?
3.0758° S (3.0758 ডিগ্রী দক্ষিণ), 37.3533° E (37.3533 ডিগ্রী পূর্ব)।

মাউন্ট কিলিমাঞ্জারোর নিকটবর্তী আকর্ষণীয় স্থানগলি কি কি?
গরোঙ্গোরো সংরক্ষিত এলাকা, সেরেঙ্গেটি জাতীয় উদ্যান, টারাঙ্গিরে জাতীয় উদ্যান, সেলৌস গেম রিজার্ভ, মাউন্ট মেরু এবং পেম্বা দ্বীপ।

* সর্বশেষ সংযোজন : September 29, 2015

Published On: Tuesday, September 29th, 2015