Quantcast

মিশরে আবু সিম্বেল-এর মন্দির

মিশরের আবু সিম্বেলের মন্দির

আবু সিম্বেল, মিশর দক্ষিণ মিশরে অবস্থিত আবু সিম্বেল হল একটি গ্রাম, যা দু’টি আবু সিম্বেল মন্দিরের আবাসস্থল। এগুলি প্রস্তর দ্বারা নির্মিত এবং লেক নাশেরের পশ্চিম তীরে অবস্থিত। স্থানটি ইউনেস্কো দ্বারা বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান রূপে ঘোষিত হয়েছে এবং এটি “নূবিয়ান মনুমেন্ট” নামে পরিচিত। এর ঐতিহাসিক তাৎপর্য্য এবং আসওয়ান উচ্চ বাঁধের নির্মাণকার্য থেকে ক্রমবর্ধমান জলস্রোতের দ্বারা আসন্ন ভয়াবহতার দরুণ ইউনেস্কো তাদের অপসারণ ও পুর্ননির্মাণের জন্য একটি কর্মসূচীর প্রস্তাব উত্থাপণ করেছে। এই ক্রিয়াকলাপ 1964 সালে শুরু হয়েছিল এবং চার বছর ধরে এটি অব্যাহত ছিল। এর ফলস্বরূপ, বালিপাথরের পর্বতগাত্রের 60 মিটার উপরে মন্দিরগুলির উত্থাপণের সময় কিছু কিছু ভেঙ্গে পড়ে। এগুলি মূলত প্রায় 3,000 বছর আগে নির্মিত হয়েছিল। অপসারণের ক্রিয়াকলাপের বিভিন্ন পর্যায় মানুষের তৈরি গম্বুজের ভিতরে ফটোগ্রাফের মাধ্যমে দেখা যেতে পারে।

মন্দির ভবনের নির্মাণকার্য মোটামুটি প্রায় খ্রীষ্টপূর্ব 1264 শতকে সূচনা হয়েছিল এবং প্রায় 20 বছর সময় নিয়েছিল। যদিও মন্দিরগুলি সময়ের সাথে সাথে অব্যবহারের ফলে অকেজো হয়ে পড়েছিল এবং 1813 সাল নাগাদ বালির মধ্যে ঢাকা পড়ে গিয়েছিল, এইসময় সুইস প্রাচ্যবিদ জাঁ-ল্যুইস বার্কহার্ড প্রধান মন্দিরের ছাদের কারুকার্যের চূড়াটি উদ্ঘাটিত করেন। বার্কহার্ড, তাঁর আবিষ্কারটি এক ইতালীয় অনুসন্ধানকারী জিওভান্নি বেলজোনির সঙ্গে ভাগ করে নেন। 1817 সালে তাঁর ভবনটিতে প্রবেশের প্রচেষ্টা সফল হয়।

আবু সিম্বেলের মহীয়ান মন্দিরটি ঈশ্বর আমূন-রে, রে-হারাখটে, টাহ এবং রামশিস II-এর প্রতি উৎসর্গীকৃত। এটি মিশরের সবচেয়ে মহীয়ান এবং সুন্দর বলে বিবেচিত হয়।

আবু সিম্বেল-এর মানচিত্র

আবু সিম্বেল সম্পর্কে তথ্যাবলী

  • মন্দির ভবনটির নির্মাণের উদ্দেশ্য ছিল মিশরের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রতিবেশীগুলিকে প্রভাবিত করা এবং এছাড়াও এই অঞ্চলে মিশরীয় ধর্মের মর্য্যাদাকে আরোও শক্তিশালী করে তোলা।
  • এটি মনে করা হয় যে, প্রাচীন মিশরীয় স্থপতি এমনভাবে মন্দিরটির অক্ষের অবস্থান নির্ণয় করেন যে 22-শে অক্টোবর এবং 22-শে ফেব্রুয়ারী-র দিন সূর্যের রশ্মি মন্দিরটির পিছনের দেওয়ালের ভাস্কর্যকে উদ্ভাসিত বা আলোকিত করে তুলবে, এই তারিখ দু’টি হল যথাক্রমে রামশিস II-এর জন্মদিবস ও রাজ্যাভিষেকের দিন।
  • রামশিস II-এর মন্দিরটি 33 মিটার উঁচু, 38 মিটার প্রশস্ত এবং চারটি মূর্তি দ্বারা সুরক্ষিত, যাদের প্রত্যেকটিই 20 মিটার উচ্চ।

আবু সিম্বেল কোথায় অবস্থিত?

আবু সিম্বেল-র প্রত্নতাত্ত্বিক স্থানটি, নীল নদ বরাবর মিশরের দক্ষিণ অংশে আসওয়ান থেকে 290 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

আবু সিম্বেল পরিদর্শনের সেরা সময়

নীল নদের তীর বরাবর অবস্থিত মিশরের এই স্থানটি পরিদর্শনের সময় মধ্যাহ্নের তাপমাত্রাকে এড়িয়ে যাওয়াটা প্রয়োজন। আবু সিম্বেল, দক্ষিণ মিশরে অবস্থিত যেখানে কাইরো-র চেয়েও অত্যাধিক গরম অনুভূত হয়। যারা মিশরে তাদের সফরের পরিকল্পনা করেন, তাদের মধ্যে অধিকাংশ ব্যাক্তির জন্যই আবহাওয়া একটি নির্ণায়ক ঘটনা হয়ে দাঁড়ায়। শীতকালের সময়ই মিশর পরিদর্শনে যাওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ কারণ এই সময় তাপমাত্রা সাধারণত কোমল থাকে (নভেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারী)।

আবু সিম্বেল দর্শনের সময়

মন্দিরটি শীতকালে (অক্টোবর থেকে এপ্রিল) প্রতিদিনই সকাল 6:00-টা. থেকে বিকেল 4:00-টে পর্যন্ত এবং গ্রীষ্মকালে (মে থেকে সেপ্টেম্বর) প্রতিদিন সকাল 6:00-টা. থেকে সন্ধ্যা 6:00-টা. পর্যন্ত খোলা থাকে।

আবু সিম্বেল-এর টিকিট

মন্দিরটিতে প্রবেশের জন্য টিকিটের মূল্য হল প্রায় 80 মিশরীয় পাউন্ড (প্রায় 13 USD). অনেক ব্যাক্তি ভোরের সূর্যের দৃশ্য দেখার তাগিদে ভোর 3:00-টের দিকে মন্দিরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। আপনার বাজেট ও পছন্দের উপর নির্ভর করে এই মহীয়ান চমৎকার মন্দিরটি পরিদর্শনে যাওয়ার জন্য আপনি মিনিবাস বা বিমানের বিকল্পগুলির মধ্যে যা কিছু বেছে নিতে পারেন।

নিকটবর্তী আকর্ষণ

নিকবর্তী স্থানগুলির মধ্যে রয়েছে : লাক্সার মন্দির, ভ্যালি অফ দ্য কিংস, কর্ণাক মন্দির, মেডিনেট হাবুর মন্দির।

* সর্বশেষ সংযোজন : December 07, 2015

Published On: Monday, December 7th, 2015